৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৯ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী | শনিবার | সকাল ৯:০৩ | হেমন্তকাল
সর্বশেষ সংবাদ
Bangla Font Problem?

জেলায় তথ্য অধিকার আইন-২০০৯ বিষয়ক কমিউনিটির উন্নয়ন সংলাপ

সোমবার :: ০৫.১১.২০১৮
“তথ্য অধিকার আইন-২০০৯” বিষয়ক তথ্যে প্রবেশাধিকারের মাধ্যমে তৃণমূল মানুষের জীবন ও জীবিকার উন্নয়ন বিষয়ক সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ জেলা শহরের স্কাই ভিউ ইন হোটেলে বাংলাদেশ এনজিওস নেটওর্য়াক ফর রেডিও এ্যান্ড কমিউনিকেশন বিএনএনআরসি”র বাস্তবায়নে ও ফিডরিক নওম্যান ফাউন্ডেশন ফর ফ্রিডম এফএনএফ এর অর্থায়নে সংলাপটি আয়োজন করে জেলার একমাত্র ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম রেডিও মহানন্দা ৯৮.৮ এফএম। সংলাপে প্রধান অতিথি উপস্থিত ছিলেন, তথ্য কমিশনের প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমেদ। প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির প্রেসিডেন্ট আনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন, নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সুলতানা রাজিয়া। রেডিও মহানন্দার ষ্টেশন ম্যানেজার আলেয়া ফেরদৌসের সঞ্চালনায় সংলাপে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ এনজিওস নেটওর্য়াক ফর রেডিও এ্যান্ড কমিউনিকেশন বিএনএনআরসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম বজলুর রহমান, বিএনএনআরসির প্রোগ্রাম-কো-অর্ডিনেটর মার্ক মানস সাহা, জেলা তথ্য কর্মকর্তা ওহিদুজ্জামান, জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান অ্যাড. আলহাজ্ব ইয়াসমিন সুলতানা রুমা, নবাবগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মনোয়ারা খাতুন, জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুল আলম, সিটি প্রেসক্লাবের সভাপতি সাজেদুল ইসলাম সাজু, প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির পরিচালক মুখলেসুর রহমান, রেডিও মহানন্দার সিনিয়র ষ্টেশন ম্যানেজার মু. তাকিউর রহমান, সহকারি ষ্টেশন ম্যানেজার মুহাম্মদ আব্দুল বারী, জেলার সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাসহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকসহ সূধীজনবৃন্দ। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এ জেড এম নুরুল হক বলেন, তথ্য অধিকার আইনে তথ্য জানার সকলেরই অধিকার রয়েছে। তথ্য অধিকারে জনগনের গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে হয়। তথ্য অধিকারে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের কোন ধরনের ক্রুটি নেই। জেলা প্রশাসন সংক্রান্ত যেকোন তথ্যই জেলা প্রশাসনের ওয়েবসাইটে দেয়া রয়েছে। যারা তথ্য জানতে চান তারা সবাই একটু সচেতন হলেই সহজেই আমরা সহজেই তথ্য দিতে পারব এবং সেই সাথে জেলা প্রশাসনের বা বিভিন্ন বিভাগের কাজের সুবিধা হবে। তিনি আরও জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় তথ্য অধিকার সকলের দোরগোড়ায় পৌছে দিতে নিরলসভাবে কাজ করছে জেলা প্রশাসন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমেদ বলেন, তথ্য অধিকার আইন দেশের জনগনের জন্য একটি অন্যন্য এক আইন। আমরা জানি, দেশে হাজারো আইন রয়েছে। যেগুলো সাধারনত কতৃপক্ষ জনগনের উপর প্রয়োগ করেন। কিন্তু এটিই একমাত্র আইন যেটি সাধারণ জনগন কর্তৃপক্ষের উপর প্রয়োগ করতে পারে। কর্তৃপক্ষের কাছে জবাবদিহিতা করতে পারে। আর জবাবদিহিতা সৃষ্টি হলে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হয়। একটি দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হলে উন্নয়নের পথ আরও সহজতর হয়। তিনি আরও বলেন, একটি নাগরিকের জানা উচিত তার জন্য এই দেশ কি বরাদ্দ রেখেছে। কোন কোন ধরনের সুযোগ-সুবিধা একজন নাগরিক হিসেবে রাষ্ট্রের কাছে থেকে প্রত্যেকে পাবে। এসব সুযোগ-সুবিধা না পেলে কি করনীয়, এর সবগুলোই তথ্য অধিকার আইনে সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ আছে। বিশেষ করে যারা সুবিধা বঞ্চিত, প্রতিবন্ধী, খেটেখাওয়া, অসহায়, দারিদ্র প্রান্তিক জনগোষ্ঠী রয়েছে তাদের উন্নয়নের মূল ¯্রােত ধারায় আনতে এই আইন প্রনয়ন করা হয়েছে। তাই এই আইনের মাধ্যমে সমাজের সেইসব জনগোষ্ঠী তাদের নায্য অধিকার পেতে পারে। তিনি জানান, তথ্য অধিকার আইন অনুযায়ী প্রত্যেক সরকারি প্রতিষ্ঠানে ১জন করে তথ্য কর্মকর্তা থাকবে এবং সেই কর্মকর্তা নাগরিকদের সংশিষ্ঠ সেই প্রতিষ্ঠানের তথ্য দিতে বাধ্য থাকবে। তথ্য না দিলে আপিল কর্মকর্তাকে অবহিত করে সঠিক তথ্য জানতে পারবে। তবে আমাদের দেশের বেশিরভাগই নাগরিক স্বল্পশিক্ষিত বা অশিক্ষিত হওয়ায় তারা জানে না, কিভাবে তারা সঠিত তথ্যটি পাবে। সেক্ষেত্রে জেলার কমিউনিটি রেডিও রেডিও মহানন্দা গুরুত্বপূর্ণ ভ’মিকা রাখতে পারে। তারা জেলার সাধারন নাগরিকদের নিকট তথ্য পাওয়ার সঠিক তথ্যগুলো সম্প্রচার করে গুরুত্বপূর্ণ পালন করতে পারে। তাছাড়াও নাটক, সংলাপ, আলকাপ, গম্ভীরা ইত্যাদির মাধ্যমেও এই তথ্যগুলো তারা নাগরিকদের নিকট পৌছে দিতে পারে।
এদিকে, সন্ধ্যায় প্রয়াস ফোক থিয়েটার ইনস্টিটিউটে প্রধান তথ্য কমিশনার রেডিও মহানন্দার থিম সং এবং নানা নাতির গম্ভীরা উপভোগ করেন। এসময় রেডিও মহানন্দায় পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক বিশেষ ম্যাগাজিন “সুরক্ষা” অনুষ্ঠানের ২জন কুইজ বিজয়ী ইশরাত জাহান, সেলিম রেজা এবং গণমাধ্যম কর্মী হিসেবে পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ে বিশেষ প্রতিবেদনের জন্য শাহরিয়ার হোসেনকে একটি করে ৩ টি রেডিও তুলে দেন প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমেদ। এছাড়াও প্রধান তথ্য কমিশনার মর্তুজা আহম্মেদ এবং এফএনএফ এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার ওমর মোস্তাফিজকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। সবশেষে রেডিও মহানন্দার “কাছে থেকো বন্ধু” অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন তথ্য কমিশনার।

মন্তব্য দেয়া বন্ধ রয়েছে।

একদম উপরে যান